অফিসিয়াল বাংলাদেশ ভিসা আবেদন কেন্দ্র

প্রিয় আবেদনকারী, অনুগ্রহ করে জানানো যাচ্ছে যে কলকাতায় বাংলাদেশ ভিসা আবেদন কেন্দ্র ২২শে মে এবং গুয়াহাটি, বোঙ্গাইগাঁও, শিলচরে ২৩শে মে, ২০২৪ বুদ্ধ পূর্ণিমা (বৈশাখী পূর্ণিমা)-র জন্য বন্ধ থাকবে। অফিস যথাক্রমে ২৩শে মে এবং ২৪শে মে ২০২৪ থেকে পুনরায় চালু হবে।

গুরুত্বপূর্ণ

দালাল /এজেন্ট এবং জাল ভিসার প্রতিশ্রুতি থেকে সাবধান থাকুন।
ফর্ম পূরণ করার সময় - বাংলাদেশে থাকার ঠিকানা পূরণ করা বাধ্যতামূলক।
বাংলাদেশে যাওয়ার উদ্দেশ্যে আপনি ফর্মটি সঠিক পূরণ করেছেন কিনা তা নিশ্চিত করুন।

অফিসিয়াল বাংলাদেশ ভিসা আবেদন কেন্দ্র্রের (বি.ডি.ভি.এসি) ওয়েবসাইটে স্বাগতম।

বাংলাদেশ ভিসা আবেদন কেন্দ্র্র (বি.ডি.ভি.এসি) বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশন, কলকাতা মনোনীত একমাত্র আউটসোর্স সংস্থা, যারা বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশন, কলকাতার পক্ষ থেকে ভারতীয় ও বিদেশী নাগরিকদের জন্য বাংলাদেশী ভিসার (কূটনৈতিক ও অফিসিয়াল পাসপোর্ট ব্যাতিত) আবেদনপত্র গ্রহণ পূর্বক প্রক্রিয়াকরণের পর পাসপোর্টসহ ফেরত দিয়ে থাকেন।

অনুগ্রহপূর্বক লক্ষ্যনীয় যে, এখানে আমরা ভিসা প্রার্থীদের নিকট হতে শুধুমাত্র আবেদনপত্র, আবেদনপত্রের সহায়ক দলিলাদি ও পাসপোর্ট গ্রহণ করি এবং প্রক্রিয়াকরনের জন্য বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশন, কলকাতায় জমা করে থাকি। কিন্তু ভিসা আবেদনের প্রাক্রিয়াকরণ ও ফলাফলের সাথে আমাদের কোন সম্পর্ক নেই, অর্থাৎ ভিসা পাওয়া না পাওয়ার ক্ষেত্রে আমাদের কোন ভূমিকা নেই। এক্ষেত্র্রে বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশন, কলকাতার সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত।

আবেদনপত্রে ভূল ও মিথ্যা তথ্য এবং ভূয়া দলিলাদি সরবরাহের জন্য একমাত্র আবেদনকারীই সম্পূর্ণরূপে দায়ী থাকবেন। আবেদনপত্রে উপস্থাপিত ভূল ও মিথ্যা তথ্য এবং ভূয়া দলিলাদি সরবরাহের কারনে বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশন, কলকাতা আবেদনপত্রটি সরাসরি বাতিল বলে গণ্য করবেন এবং প্রয়োজনে মিথ্যা তথ্য এবং ভূয়া দলিলাদি সরবরাহের জন্য দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ভারতীয় প্রচলিত আইনের সহায়তা নিবেন। এজন্য সুপ্রিয় ভিসাপ্রার্থীদের নিকট আমাদের পরামর্শ এই যে, শুধুমাত্র ভিসাপ্র্রাপ্তির পরই যেন ভ্রমনের পরিকল্পনা করেন।

ভিসা আপনার দোরগোড়ায়


ভিসা আপনি যেখানে চান

ভিসার জন্য আবেদন করবেন কিভাবে ?

BVAC

আমাদের ব্যাঙ্কিং পার্টনার